কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেলে জেলের রহস্যজনক মৃত্যু

আনোয়ার হোসেন আনু, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেল আল্লার দান থেকে আঃ মানিক (৪৫) নামে এক জেলের লাশ উদ্ধার করেছে মহিপুর থানা পুলিশ। সোমবার দুপুরে (২১ সেপ্টেম্বর) ওই হোটেলের ২০৪ নম্বর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত মানিক চট্রগ্রাম জেলার বাঁশখালী থানার সনুয়া গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র।

হোটেল সুত্রে জানা যায়, রোববার রাত ৮টায় কুয়াকাটার আবাসিক হোটেল আল্লার দান এ ওঠে মানিক। সকালে ডাকাডাকির পর কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে ট্যুরিষ্ট পুলিশকে খবর দেয় হোটেল কর্তৃপক্ষ। ট্যুরিষ্ট পুলিশ থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করেন। পুলিশ হোটেল কক্ষের দরজা ভেঙ্গে খাটের পাশে পরে থাকা অবস্থায় মানিকের লাশ সনাক্ত করে। হোটেল কর্তৃপক্ষ এমন রহস্যজনক মৃত্যুর বিষয়ে কিছুই জানাতে পারেনি। তবে হোটেলে থাকা রেজিস্টারে দেখা গেছে নিহত মানিকের সাথে লিটন নামে আরও এক ব্যক্তি ওই হোটেলে অবস্থান করছিল।

মানিকের ছোট ভাই আঃ রহিম জানান, মানিক এফবি আল্লার দান ট্রলারের মাঝি ও মালিক। ১৯ সেপ্টেম্বর রাত ১১টায় সমুদ্র মাছ শিকার শেষে ট্রলার নিয়ে মৎস্যবন্দর মহিপুর ঘাটে আসে। জলিল ঘরামীর মালিকানাধীণ বিসমিল্লাহ মৎস্য আড়দে মাছ বিক্রি করে রাত্রী যাপনের জন্য আল্লার দান হোটেলে ওঠে। সোমবার দুপুরে মৃত্যুর খবর জানতে পারে।
মহিপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।